‘ক্রসফায়ারে’র  শিকার যারা তারা আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার কেন পাবে না?

Mon, Sep 7, 2020 9:36 PM

‘ক্রসফায়ারে’র  শিকার যারা তারা আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার কেন পাবে না?

নতুনদেশ ডটকম: বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডের (ক্রসফায়ার)  শিকার যারা তারা আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার কেন পাবে না- এই প্রশ্ন তুলেছে বিএনপি দলীয় সাংসদ হারুনুর রশীদ।

জাতীয় সংসদে তিনি বলেছেন, ‘আজ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের বিষয়ে যে প্রতিবেদন দিয়েছে, তাতে গত ১০–১২ বছরে তিন হাজারের বেশি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজ যারা স্বজনকে হারিয়েছে, গুম হয়েছে বা বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে, তারা কি আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার পাবে না? সংবিধানের এই বিধানগুলো কি আমরা স্থগিত করে দিয়েছি?’

নিজের নির্বাচনী এলাকা তিনটি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের উদাহরণ দিয়ে বিএনপির এই সাংসদ বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের পর বলা হয় পুলিশের ওপর বেপরোয়া গুলিবর্ষণ। এটা কি সম্ভব? এসব ঘটনায় যে উদ্ধার দেখানো হয়, তা হাতে তৈরি বাটাল, পিস্তল। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার পরিচয়ে মানুষকে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। উঠিয়ে নিয়ে উপর্যুপরি হত্যা করছে। আর নাটক বানাচ্ছে। সরকার সেগুলোর সার্টিফিকেট দিচ্ছে। এসব ঘটনা ঘটেই চলেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি আল্লাহকে সাক্ষী রেখে বলছি, সব সত্য। এক ইঞ্চিও মিথ্যা বলছি না।’

পুলিশের গুলিতে কক্সবাজারের টেকনাফে সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যাকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে হারুন বলেন, ওই ঘটনার তদন্ত চলছে। আদালতে বিচার হচ্ছে। কিন্তু তিন হাজারের বেশি হত্যাকাণ্ডের শিকার ব্যক্তিদের পরিবার কি আইনের আশ্রয় লাভের সুযোগ পাবে না? তাদের পাশে রাষ্ট্র দাঁড়াবে না? এ বিষয়ে সংবিধানের ২৮ ও ৩২ অনুচ্ছেদে সব নাগরিকের সমান অধিকার ও আইনের আশ্রয় লাভের সুযোগের কথা তুলে ধরেন তিনি। একই সঙ্গে এ বিষয়ে সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেন।

সূত্র: প্রথম আলো।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান