বিচারপতি সিনহার  কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনের শুনানী আগামী মাসে

Thu, Jul 25, 2019 12:39 AM

বিচারপতি সিনহার  কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনের শুনানী আগামী মাসে

নতুনদেশ ডটকম: বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনের উপর  আগামী মাসে শুনানী হবে । গত ৪ জুলাই  সড়ক পথে কানাডায় এসে নায়াগ্রায় রাজনৈতিক আশ্রয় চান বিচারপতি সিনহা। তারপর থেকে তিনি টরন্টো বসবাস করছেন।

জনাব সিনহার ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো জানায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনটি ঝুলে যা্ওয়ার পর তিনি কানাডায় এসে আশ্রয় চা্ওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সেই সিদ্ধান্ত অনুসারে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে  নিজে গাড়ি চালিয়ে তিনি কানাডা আসেন। স্কারবোরো এলাকায় একটি কন্ডোমিনিয়াম ভাড়া করে আপাতত সেখানেই থাকছেন তিনি। তার সঙ্গে স্ত্রী এবং মেয়েও রয়েছে।

নিউইয়র্কের সূত্রগুলো জানায়, আমেরিকায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়ে বিচারপতি সিনহা তেমন একটা ইতিবাচক আচরন পাননি। তরুন একজন কর্মকর্তা তার সাক্ষাতকার নিয়েছেন এবং বিচারপতি সিনহার বক্তব্যে ‘ সন্তোষ্ট নন’ জানিয়ে তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেয়ার জন্য রিফিউজি বিষয়ক আদালতে পাঠিয়ে দেন। তার পর আর তার আবেদনের কোনো অগ্রগতি হয় নি। জানা যায়, এরি মধ্যে তার স্ত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি কানাডাকে পরবর্তী গন্তব্য হিসেবে বেছে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি হিসেবে এবং তাকে ঘিরে ঘটনাপ্রবাহের কারনে কানাডায় আবেদন করার সাথে সাথে রাজনৈতিক আশ্রয়ের ব্যাপারে  ‘টেবল ডিসিশন’ হয়ে যাবে- অনেকের এমন একটি ধারনা থাকলেও বিচারপতি সিনহার ক্ষেত্রে সেটি ঘটেনি। এক মাস পর শুনানীর তারিখ দেয়া হয়েছে তাকে।

কানাডার সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, তৃতীয় নিরাপদ কোনো দেশে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করা হলে  তিনি কানাডায় প্রবেশের অনুপুযুক্ত হবেন- মর্মে একটি নতুন আইন হয়েছে। সেই আইনের বিধিতে বিচারপতি সিনহা রাজনৈতিক আশ্রয় পা্ওয়ার যোগ্য নন। কিন্তু তার আবেদনপত্র গ্রহন করে শুনানীর সুযোগ দেয়াকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন  বিচারপতির সিনহার ঘনিষ্ঠজনরা।

টরন্টোয় বাসা ভাড়া করে বসবাস শুরু করলেও  বিচারপতি সিনহা খানিকটা নিরিবিলিই থাকছেন। এর মধ্যে তিনি একটি হিন্দু মন্দিরে গিয়েছেন এবং বাংলাদেশ সরকারের সাথে টানাপড়েন চলাকালে বিশেষভাবে আলোচনায় আসা একজন ব্যবসায়ীর আত্মীয়ের বাসায় নিমন্ত্রন খেতে গেছেন। ওই নিমন্ত্রনে নিউইয়র্ক থেকে তার কয়েকজন বন্ধুও  যোগ দিয়েছেন বলে জানা যায়।


সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
Designed & Developed by Tiger Cage Technology
উপরে যান