কিছু দেশের ‘ট্রাভেল অ্যালার্ট’ হতাশাজনক: মেনন

Sun, Dec 17, 2017 11:35 AM

কিছু দেশের ‘ট্রাভেল অ্যালার্ট’ হতাশাজনক: মেনন

নতুনদেশ ডটকম: বাংলাদেশ পৃথিবীর অন্যতম নিরাপদ দেশ হওয়ার পরও এ দেশে ভ্রমণের ক্ষেত্রে কিছু দেশের ট্রাভেল অ্যালার্ট (ভ্রমণ সতর্কতা) জারিতে হতাশা প্রকাশ করেছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। তিনি ওই দেশগুলোর এ ধরনের পদক্ষেপকে শিকাগো সনদের পরিপন্থী বলে উল্লেখ করেছেন।

রোববার সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের (বিপিসি) নিউজ লেটার ‘দ্য ট্রাভেললগ’–এর আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, এ ধরনের সতর্কতা হতে হয় সুস্পষ্ট ও নির্দিষ্ট সময়ের জন্য। তিনি ‘অ্যালার্ট’ প্রত্যাহারের দাবি জানান।

রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দেশের অগ্রগতি ও সৌন্দর্য তুলে ধরতে আগামী বছর থেকে ঢাকায় আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলার আয়োজন করা হবে। কেননা পর্যটন এখন আর কেবল দেশ দেখার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। রিলিজিয়াস টুরিজম, হালাল টুরিজম, কালচারাল টুরিজম, হেলথ টুরিজম পর্যটনকে সবচেয়ে বর্ধিষ্ণু শিল্পে পরিণত করেছে। গত বছর ১২০ কোটি পর্যটক পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন। আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা এসব পর্যটককে বাংলাদেশমুখী করতে ভূমিকা রাখবে।

উল্লেখ্য, গত বছর জঙ্গি হামলাসহ বিভিন্ন কারণে কয়েকটি দেশ বাংলাদেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে কিছু সতর্কতা মেনে চলতে তাদের নাগরিকদের জন্য সতর্কতা জারি করে।

অনুষ্ঠানে বিপিসি চেয়ারম্যান আখতারুজজামান খান কবীর, বিপিসির পরিচালক শহীদুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাশীদুল হাসান, মনিটরের সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম, ট্রাভেল ওয়ার্ল্ডের সম্পাদক সাহাবুদ্দিন, পাটা বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সভাপতি শহীদ হামিদ, হিলের সহকারী পরিচালক কে এম আবদুস সালাম, জার্নি প্লাসের প্রধান নির্বাহী তৌফিক রহমান, বেঙ্গল ট্যুরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: প্রথম আলো


External links are provided for reference purposes. This website is not responsible for the content of externel/internal sites.
উপরে যান